An Education Blog

word direction logo

ঈদের ভিন্নধর্মী উপহারে চমকে দিন সবাইকে!

ঈদের ভিন্নধর্মী উপহারে চমকে দিন সবাইকে!

ঈদে উপহার কী হবে? প্রিয়জন, আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধবকে কি দেবেন যা তাদেরকে খুশী করে দেবে এক ঝলকে? পোশাক তো সবাই দেয়, আপনি দিন ভিন্ন কিছু। আপনার জন্য তুলে ধরছি দারুণ এই গিফট আইডিয়াগুলো-

বাবার জন্য-
বাবা আমাদের মাথার উপরের ছায়া। সারাজীবন তিনিই আমাদের দিয়ে গেছেন। তাকে আর কবে আমরা কি দিতে পেরেছি! বাবা সি মানুষ যিনি নিজের জন্য কিছুই না কিনে বছরজুড়েই আমাদের দরকারের জিনিস দিতে থাকেন। খেয়াল করুন, কোন জিনিসটা তাঁর খুব দরকার। হয়ত চশমার ফ্রেমটা বদলান না অনেক দিন হল। অথবা আগে সখ করে হাত ঘড়ি পড়তেন, এখন আর কেনা হয় না, পড়াও হয় না। বাবার এমন অনেক দরকারি জিনিস আছে যা তার দরকারি হলেও তিনি কিনছেন না। সেই জিনিসটি তাঁর হাতে তুলে দিন।

মায়ের জন্য-
মায়ের মত কে আর আছে আপন আমাদের? নতুন সংসারে কত সখ বিসর্জুন দিয়েই তিনি আমাদের প্রানপ্রিয় মা। মা যখন তরুনী ছিলেন কি করতেন ঈদে? কেমন পোশাক পড়তে বা চুল বাধতেন? মাকে ফিরিয়ে দিন তার ফেলে আসা দিনের ঈদ। তেমন একটি শাড়ি বা খোপার কাটার সাথে সুরভিত প্রিয় ফুল দিয়ে সাজান মায়ের উপহারের ডালি।

ভাই-বোনের জন্য-
ভাই-বোনকে ঈদের সালামী তো দিতেই হবে। আর বয়সে বড় হলে নিতে হবে তাঁর কাছ থেকেই। ঈদের মত বড় উৎসব আর জন্মদিন ছাড়া উপহার তেমন দেওয়া হয় না আমাদের। বোনকে জিজ্ঞেস করলেই জানা যাবে, কসমেটিক্স, বই বা সিডির লিস্ট বানিয়ে রেখেছে সে! ভাই ও তাই। তাদের কাছ থেকে জেনেই ঈদের দিনে চোখে পড়ার মত চমৎকার একটি অনুসংগ কিনে দিয়ে চমকে দিতে পারেন কিন্তু! সেটা আপনার বাজেটেও হয়ে যাবে আবার ভাই-বোনও থাকবে খুশী।

সঙ্গী-
আপনার প্রিয় সঙ্গঈকেও তো দেওয়া চাই ঈদের উপহার! নারী-পুরুষ ভেদে অবশ্যই উপহারও আলাদাই হবে। একটা সারপ্রাইজ দিন তাকে। ঈদের দিন খাওয়ান পছন্দের রেস্তোরাঁয়। একটা ভ্রমণ পরিকল্পনা করুন। ফাকা ঢাকায় রিকশা ভ্রমণ অথবা ঢাকার বাইরে কোথাও। সময় দিন। সমেয়ের বড় উপহার নেই। সাথে ফুল, চকোলেট, ব্রেসলেট, মানিব্যাগ, টেডি বিয়ার ইত্যাদি যে কোন কিছু দিতে পারেন। তবে অবশ্যই নিজের নয়, সঙ্গীর পছন্দের দামটাই দিন।

বন্ধু-বান্ধব-
বন্ধুদের চাই আড্ডাবাজি। একসাথে কোন সিনেমা দেখতে যেতে পারেন। সিনামার টিকেটের দায়িত্ব আপনার। অথবা আয়োজন করে ফেলুন একটা ক্যাজুয়াল পার্টি। গিফট যে শুধু বস্তুই হবে এমন কোন কথা নেই।

কাজে লাগান সৃজনশীলতা-
আপনি প্রিয়জনদের যাকে যাই উপহার দিন না কেন তার সাথে যোগ করুন নিজের সৃজনশীলতা। অন্তত গিফট নিজের হাতে প্যাক করুন। পোশাক, গহনা বা অন্যান্য আনুষঙ্গিক উপহারে যোগ করুন নিজের আইডিয়া। নিজের হাতে কিছু করতে পারলে সবচেয়ে ভাল হয়। ঈদের দিন অন্তত একটা খাবার নিজের রান্না করতে পারেন বা সবার জন্য নিয়ে আসতে পারেন। এভাবেই বাড়ে আন্তরিকতা। টাকার অঙ্কে নয়, আপনার মনোযোগে।

Source: http://www.deshebideshe.com/news/details/78038

Leave a Reply

Share this

Journals

Email Subscribers

Name
Email *