An Education Blog

word direction logo

হাড়ের ক্ষয় রোধে পুষ্টিকর খাবারের পাশাপাশি জীবনযাপনে নিয়ন্ত্রন জরুরি

frut2মানুষের শরীরের প্রতিটি অঙ্গই গুরুত্বপূর্ল এবং একেকটি আরেকটির পরিপূরক।তবে অনেকেই সচেতনতার অভাবে অনেক অঙ্গের দিকে ততটা গুরুত্ব দেননা যার পরিনাম অনেক সময় বিরাট ক্ষতির কারণ হয়ে দাড়ায়।তেমনি একটি হলো শরীরের হাড়।এটি এমন গুরুত্বপূর্ণ যে এটির সমস্যা মানুষকে জড়তে পরিণত করতে পারে কাজেই এর যত্ন বিশেষ করে বয়সের সাথে সাথে  বেশী করে বাড়াতে হবে এবং খেয়াল রাখতে হবে।

হাড় সংক্রান্ত সমস্যা হচ্ছে হাড়ের ক্ষয়।তবে নিয়মিত যত্ন নিলে শরীরকে এ সমস্যাটি থেকেও বা  দূরে রাখা সম্ভব। হাড়ের ক্ষয় রোধ করতে নিয়মিত কিছু করলে এই সমস্যা থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।
মানসিক চাপ
মানসিক চাপের সাথে হাড়ের সম্পর্ক গুরুত্বপূর্ণ। কারণ মানসিক চাপে থাকলে দেহ থেকে কারটিসোল নামক একটি হরমোন নিঃসরণ হয়; যা হাড় ক্ষয়ের জন্য দায়ী। তাই মানসিক চাপটাকে যতো দূরে রাখবেন ততোই ভালো।

ভিটামিন ডি এর অভাব
হাড়ের ক্ষয়রোধের জন্য ভিটামিন ডি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদি শরীরে ভিটামিন ডি এর অভাব থাকে তবে ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার পরেও হাড়ের সমস্যা থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব হয় না। তাই হাড়ের সমস্যা ও ক্ষয় রোধ করতে ভিটামিন ডি জাতীয় খাবার যেমন  মাছ, মাছের তেল, দুধ, সয়া দুধ, ফলমূল খেয়ে এর অভাব পূরণ করতে হবে। তবে হাড়ের ক্ষয়রোধ থেকে বাঁচা যাবে।

পুষ্টিকর খাবার
মজবুত হাড়ের জন্য খাদ্যতালিকায় অবশ্যই ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার রাখতে হবে। কম ফ্যাট যুক্ত দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার খেতে হবে প্রতিদিন। দুধ, ডিম, কাঠবাদাম, ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ সামুদ্রিক মাছ, সবুজ শাকসবজি, ব্রকলি, প্রচুর পরিমাণে রাখতে হবে খাদ্য তালিকায়। এতে হাড় মজবুত হবে।

ধূমপান মদ্যপান
ধূমপানের ফলে হাড়ের ক্ষয় বাড়তে থাকে। তাই এ থেকে রক্ষা পেতে ধূমপান ও মদ্যপানকে বাদ দিতে হবে।

শারীরিক পরিশ্রম
টানা বসে কাজ করলে দেহের হাড়ের ভঙ্গুরতা বাড়ে।  যারা প্রতিদিন শারীরিক পরিশ্রম বেশি করে তাদের হাড়ের ক্ষয় রোধ কম হয় বা হয় না। যারা একেবারেই শারীরিক পরিশ্রম করেন না তাদের হাড় অপেক্ষাকৃত নরম ও দুর্বল হয়ে পড়ে দ্রুতই। শারীরিক ব্যায়াম, খেলাধুলা, নাচ, সাইকেল চালানো, সাতার কাটা ইত্যাদি ভালো শারীরিক পরিশ্রম। এগুলো হাড়ের ক্ষয়রোধে সাহায্য করে।
কাজেই আপনার জীবনযাত্রায় এ বিষয়গুলি সঠিকভাবে মেনে চলুন এবং শরীরের অন্যান্য অঙ্গের পাশাপাশি হাড়ের দিকেও ভালোভাবে খেয়াল রাখুন।

Source: http://agrilife24.com/new/index.php/2016-04-16-09-45-51/269-2016-04-26-07-02-51

Leave a Reply

Share this

Journals

Email Subscribers

Name
Email *